শান্তি মিশনে যৌন অপরাধ বেড়েছে: জাতিসংঘ

Posted on


un-pEACE.jpg

বিভিন্ন দেশে দায়িত্বরত জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে যৌন অপরাধের অভিযোগ বেড়েছে। জাতিসংঘের একটি জরিপের ভিত্তিতে এএফপির এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য দেয়া হয়েছে।

খবরে বলা হয়, ২০১৪ সালে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী সেনাদের বিরুদ্ধে যৌন অপরাধের ৫২টি অভিযোগ পাওয়া গিয়েছিল। এক বছরের ব্যবধানে এই সংখ্যা ৬৯টিতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৫ সালে ৬৯টি যৌন নির্যাতনের ঘটনায় শান্তিরক্ষী সেনাদের জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২১টি দেশের সেনারা এসব ঘটনায় জড়িত ছিল। এর মধ্যে রয়েছে কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র, বুরুন্ডি, জার্মানি, ঘানা, সেনেগাল, মাদাগাস্কার, রুয়ান্ডা, কঙ্গো রিপাবলিক, বুরকিনা ফাসো, ক্যামেরুন, তানজানিয়া, স্লোভাকিয়া, মলদোভা, টোগো, দক্ষিণ আফ্রিকা, মরক্কো, বেনিন, নাইজেরিয়া, গ্যাবন এবং কানাডা।

যৌন নির্যাতনে জড়িত সব সেনা সদস্যের দেশের নাম এই প্রথমবার জানিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির মহাসচিব বান কি-মুনের উদ্যোগে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।

সম্প্রতি এক বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীবাহিনীর বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতেন অভিযোগ উঠলেও তার কোনো প্রমাণ না থাকায় জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বাংলাদেশের নাম নেই।

শান্তিরক্ষীদের মধ্যে বিভিন্ন দেশের সেনাবাহিনী, আন্তর্জাতিক পুলিশ, স্বেচ্ছাসেবক এবং অন্যান্য কর্মীরা যৌন অপরাধে জড়িত বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশুদের দেহব্যবসায় বাধ্য করার কথাও জানানো হয়েছে।

যৌন নির্যাতনের ঘটনায় তাৎক্ষণিক কোর্টমার্শাল এবং সব শান্তিরক্ষীদের ডিএনএ ডাটাবেজ তৈরির আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। খবর এএফপির

Advertisements

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s