স্মার্টফোনে ইন্টারনেট খরচ কমাতে করণীয়

উক্তি Posted on


dfg

চলছে এখন তথ্য-প্রযুক্তি ও স্মার্টফোনের যুগ। স্মার্টফোন ও ইন্টারনেট ছাড়া যেন এখন দিন চলাই কঠিন হয়ে পড়েছে অনেকের। ফলে স্মার্টফোনের খরচ বেড়ে গেছে অনেক। জরুরি আর অ-জরুরি হোক, মানুষকে সর্বদাই স্মার্টফোনে চ্যাট করতে দেখা যায়। এর ফলে অহেতুক গচ্চা দিতে হচ্ছে বাড়তি টাকা। নিচে স্মার্টফোনের ইন্টারনেট খরচ কমানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করা হলো : ১. প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে নিজের স্মার্টফোনের ডাটা খরচের হিসেব রাখুন। ‘অন’ করে রাখুন ডাটা ট্র্যাকিং। ২. আইওস-এ বিল্ট ইন ডাটা ইউসেজ ট্র্যাকার থাকে। সেটিংস অপশনে গিয়ে দেখে নিন কোন অ্যাপস সবথেকে বেশি ব্যাকগ্রাউন্ড ডাটা খরচ হয়েছে। বুঝেশুনে সেই অ্যাপসের ব্যাকগ্রাউন্ড ডাটা ‘ডিসেবল’ করে দিন। ৩. স্মার্টফোনে ইনস্টল করুন অনাভো কাউন্ট অ্যাপসটি। তারপর কারেন্ট ডাটা প্ল্যানটির সমস্ত তথ্য দিন। এই অ্যাপসটি আপনার ডাটা খরচকে ট্র্যাক করবে ও আপনাকে নিয়মিত রিপোর্ট দেবে। ৪. অ্যান্ড্রয়েড এবং  আই ও এস ফোনের জন্য ইনস্টল করুন  মাই ডাটা ম্যানেজার অ্যাপটি। শুধু ফোনে নয়, মাল্টিপল ডিভাইসেও যদি ওয়াই-ফাই ও থ্রিজি ব্যবহার করেন, তাহলে এই অ্যাপসটি আপনাকে ডাটা ইউসেজের হিসেব রাখতে সাহায্য করবে। ৫.  ভিডিও চ্যাটিং বা বড় অ্যাপস ডাউনলোড করার সময় ফোনের ইন্টারনেট বন্ধ রেখে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করুন। ৬. খরচ কমানোর সবচেয়ে ভালো উপায় হলো অপ্রয়োজনে ডাটা কানেকশন চালু না করা।

20160612053f957

Advertisements

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s